আমাদের জানা দরকার  WINDOWS 10 এ কি কি পরিবর্তন থাকছে তো চলোন বিস্তারিত….

0
60

আসা করি সকলেই অনেক ভাল আছেন। অনেক দিন পর আবার লিখতে বসলাম। যাই হোক কাজের কথায় চলে যাই। আমরা সকলেই জানি যে Microsoft কম্পানি  Windows 10 বের করতে যাচ্ছে। এ নিয়ে অনেক ব্লগ এ তোলপাড় হয়ে যাচ্ছে। খোদ priyotunes এ এই বিষয় নিয়ে অনেক Tune আছে। ইতি মধ্যে Windows 10 Technical Preview আমরা অনেকেই পরিক্ষা করে ফেলেছি। যাই হোক, আমি আজ আলোচনা করবো যে আসলে কি কি বিষয় একে বারে আলাদা রাখছেন Microsoft তাদের এই নতুন সংস্করন টিতে। ত চলুন আলোচনা করা যাক!

# স্টার্ট মেনুঃ

Windows 8.1 এ গায়েব হয়ে যাওয়া স্টার্ট মেনু আবার ফিরে এসেছে উইন্ডোজ ১০ এ। কিন্তু এই বারের স্টার্ট মেনু কিন্তু উইন্ডোজ ৭ বা তার পেছনের সংস্করণ গুলর মত না। উইন্ডোজ ১০ এর স্টার্ট মেনু তে থাকছে অনেক নতুন এবং আকর্ষণীয় ফিচার। ত চলুন এক নজরে দেখে আসি সব ফিচার গুলো!

ওয়াও ! সত্যি অসাধারন স্টার্ট মেনু থাকছে উইন্ডোজ ১০ এর সাথে। আমরা ১ নাম্বার এ দেখতে পাচ্ছি যে এতে এক্সপান্ড অপশন আছে, যার মাধ্যমে আমরা স্টার্ট মেনু টি কে ফুল স্ক্রীন করতে পারব ঠিক ৮.১ এর মত। ২ নং এ দেখতে পাচ্ছি, পাওয়ার বাটন। এতে ক্লিক করে পিসি কে অফ, স্লীপ, এবং রিস্টার্ট করতে পারব। ৩ নং এ লক্ষ করলে দেখতে পাব যে, লাইভ টাইলস। উফ চরম একটা জিনিস হল এই লাইভ টাইলস। ৪ নং এ দেখতে পাচ্ছি Most Used আপ্পস লিস্ট! আপনার বেশি ব্যবহার করা আপ্পস গুলো খুজে পেতে আপনাকে কোথাও জেতে হবে না। জাস্ট স্টার্ট কি চাপুন আর পেয়ে যান! ৫ নং এ দেখতে পাচ্ছি অল আপ্পস লিস্ট। এইখানে আপনার পিসি তে অবস্থানকৃত সকল আপ্স আপনি খুজে পাবেন। তাছাড়াও পারবেন আপনার পছন্দের অ্যাপ গুলো কে স্টার্ট মেনু তে পিন করার সুবিধা! ৬ নং এ দেখতে পাচ্ছি সার্চ অপশন! বলে রাখি যে, উইন্ডোজ ১০ এ সার্চ এ কিন্তু বাপক হারে পরিবর্তন আনা হয়েছে। আমারা দেখতে পাচ্ছি যে এতে আমরা টাইপ করে এবং শব্দ ব্যবহার করে সার্চ করতে পারব। শব্দ ব্যবহার করে সার্চ করতে মাইক্রোফোন আইকনটি তে ক্লিক করে আপনার হেডফোন আ কথা বলে সার্চ করুন।

ত এই ছিল উইন্ডোজ ১০ এর স্টার্ট মেনু এর পরিবর্তন। উইন্ডোজ ১০ এর আরো একটি আকর্ষণ হলো, উইন্ডোজ ১০ পরিচালিত সকল ডিভাইস এ একই আপ্পস ব্যবহার করা যাবে। আপ্পস ডেভলপের গন একই আপ্পস বিভিন্ন স্ক্রীন মাপে বানাবেন। যাতে সকল অ্যাপ গুলো পিসি, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট, ফোন ইত্যাদি উইন্ডোজ ১০ পরিচালিত ডিভাইস গুলো তে চলতে পারে।

# করটানাঃ

উইন্ডোজ ১০ এর আরো একটি নতুন ফিচার হলো করটানা। করটানা হলো আপনার বাক্তিগত সহায়িকা। করটানা ব্যবহার করতে চাইলে স্টার্ট বার এ অবস্থিত করটানা আইকন টিতে ক্লিক করতে হবে। অথবা আপনি Voice ব্যবহার করেও করটানা ব্যবহার করতে পারেন। নিচের মত করে সেটিং পরিবর্তন করুন এবং শুধু মাত্র বলুন “Hey Cortana”। আপনার করটানা সয়ংক্রিয় ভাবে চালু হয়ে যাবে।

এখন করটানা কে আপনার যা ইচ্ছা তা বলে সার্চ করতে বলুন, সে সার্চ করে দেবে। এটি আসলেই চমৎকার একটি ফিচার। যাদের উইন্ডোজ ফোন আছে তারা এই সার্ভিস টি উপভগ করেছেন নিশ্চয়। তবে উইন্ডোজ ১০ এর করটানা কে আরো উন্নত করা হয়েছে।

# আইকন, অ্যাপ উইন্ডো;

উইন্ডোজ ১০ এর আইকন এ অনেক পরিবর্তন আনা হয়েছে। তাছাড়া আমরা দেখতে পাচ্ছি যে মেট্রো আপ্পস গুলো উইন্ডোজ ১০ এ উইন্ডো নিয়ে খুলতেছে। এবং উইন্ডো সাইজ কমা বারা করার সাথে আইকন অটো মেটিক জেনারেট হবে।

# নতুন Notification Center:

windows 10 এর Notification Center এ অনেক পরিবর্তন আনা হয়েছে। Notification Center থেকে আপনি VPN, Display, GPS, Tablet Mode ইত্যাদি নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন। Tablet Mode উইন্ডোজ ১০ এর নতুন একটি ফিচার। উইন্ডোজ ১০ এর UI কে Touch করার উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে।  Tablet Mode এ ক্লিক করলে সব আপ্পস এবং উইন্ডো গুলো ফুল স্ক্রীন হয়ে যাবে। যা Tablet এ ব্যবহার এর উপযোগী।

# নতুন টাস্ক ভিউ;

উইন্ডোজ ১০ এ যোগ করা হয়েছে নতুন টাস্ক ভিউ অপশন। যার মাধ্যমে খুব সহজে আপনি মাল্টি টাস্কিং করতে পারবেন। স্টার্ট বার থেকে টাস্ক ভিউ নামক অপশন টিতে ক্লিক করে আপনি এই সুবিধাটি নিতে পারবেন। তাছারাও আছে মাল্টি Desktop Use এর সুবিধা।

# নতুন আপ্পস;

উইন্ডোজ ১০ এ  Default ভাবে কিছু নতুন আপ্পস যোগ করা হয়েছে। তার মধ্যে Photo App, Video App, Music App অন্যতম। নতুন ফটো আপ্পস এর মাধ্যমে ফটো ভিউ করা ছাড়াও আপনি বিভিন্ন ডেট এ অ্যালবাম ভিউ দেখতে পাবেন। তাছাড়া আপনি ফটো বিবরনি ও  দেখতে পাবেন। তাছাড়া উইন্ডোজ ১০ ৮কে ভিডিও সমর্থন করবে।

# উইন্ডো ইন্টারফেস এবং এনিমেসনঃ

উইন্ডোজ ১০ এ উইন্ডো ইন্টারফেস এবং এনিমেসন এ অনেক ভিন্নতা আনা হয়েছে। উইন্ডো বডার গুলো চিকন করা হয়েছে। এবং Close, Minimize, Maximize অপশন গুলো আগের তুলনায় বড় করা হয়েছে। তাছাড়া Close, Minimize, Maximize ইত্যাদি করার সময় Fade In, Fade Out, Zoom In ইত্যাদি Animation যোগ করা হয়েছে।

# X-Box

উইন্ডোজ ১০ গেম প্রেমি দের জন্য বেশ জন প্রিয় হতে পারে। কেননা উইন্ডোজ ১০ এর আর একটি আকর্ষণ হলো এক্স বক্স। তাছারা ও Windows 10 এ আছে DirectX 12 [এক্স বক্স নিয়ে আরেকদিন বিস্তারিত আলোচনা করার ইচ্ছা আছে]

# নতুন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার;

উইন্ডোজ ১০ এ যোগ করা হয়েছে নতুন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার। যা আপনার ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার বাবহারে এনে দেবে নতুন অভিজ্ঞতা। এতে আছে Reading Mode, Safe Browsing Mode, integration with Cortana, Rendering Agent. তাছারা windows 10 এ Internet Explorer Extension Support করবে।

ত এই হলো উইন্ডোজ ১০ এর পরিবর্তন সমুহ। অধির আগ্রহে অপেক্ষা করে আছি উইন্ডোজ ১০ এর সর্বশেষ সংস্করণ টির জন্য। আপনারা ও অপেক্ষা করে থাকলে Comment এ জানাবেন। ভাল থাকুন। আবার দেখা হবে পরবর্তী টিউন এ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here