জেনে নিন হার্ট সুস্থ্য রাখার কার্যকরী টিপস।

0
5

হার্টকে সুস্থ্য রাখার জন্য আমাদের প্রতিদিন রুটিন মেনে চলা উচিৎ। আমি একটি তালিকা তৈরি করেছি ইন্টারনেট ঘুটা/ঘাটি করে। যদি এই নিয়োম অনুযায়ী যদি সবাই চলে তাহলে অবশ্যই হার্ট সুস্থ্য থাকবে।

তাহলে চলুন নিচের থেকে তালিকাগুলো জেনে নেই। সবাই ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন।

*নিয়মিত শরীরচর্চা করুন:  প্রতিদিন নিয়ম মেনে শরীরচর্চা করলে শরীরে অক্সিজেনের প্রবাহ স্বাভাবিক থাকে, ফলে হার্ট ভালো থাকে। ব্যায়াম করলে দেহের রক্ত প্রবাহ সচল ও স্বাভাবিক থাকে। যেমন- ১.প্রতিদিন নিয়ম করে আধা ঘণ্টা হাঁটাহাঁটি করুন। ২.অফিসে লিফটের বদলে সিঁড়ি ব্যবহার করুন। ৩.ঘরের ছোটখাটো কাজগুলো নিজেই করার চেষ্টা করুন।

* ফলমূল ও শাক-সবজি খান: ফলমূল এবং শাক-সবজি খেলে হার্ট ভালো থাকে। সবুজ শাক-সবজির মধ্যে পালংশাক, লাউ, কুমড়া, গাজর, বিট, বাঁধাকপি, ভুট্টা, লাল আলু ইত্যাদি হার্টের জন্য বেশ উপকারী।

* ধূমপান ত্যাগ করুন: ধূমপানের অপকারী দিকগুলো নিয়ে ভাবুন। ধূমপায়ী বন্ধুদের সঙ্গ ত্যাগ করাই শ্রেয়। মদ্যপান এড়িয়ে চলুন।

* নিয়মিত দৌড়ান: হার্ট ভালো রাখতে হলে প্রতিদিন কমপক্ষে তিন কিলোমিটার করে দৌড়ানোর উপদেশ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। এ ক্ষেত্রে দৌড় শুরুর আগে এবং শেষে হার্ট রেটের সংখ্যা লিপিবদ্ধ করারও অনুরোধ জানিয়েছেন তাঁরা।

* চর্বি যুক্ত খাবার কম খান: খাদ্য তালিকা থেকে নিয়মিতভাবে চর্বির পরিমাণ কমাতে থাকুন, তবে অবশ্যই পুষ্টি তালিকার নিুক্রম ছাড়িয়ে যাবেন না।

* ওজন কমান :  ওজন নিয়ন্ত্রণে আনুন। হার্টের সমস্যার সঙ্গে অন্য অনেক শারীরিক জটিলতাও পালাবে। আপনার শরীরের মাত্রারিক্ত ওজন হৃদয় বহন করতে পারবে না।

* রান্নায় সঠিক তেলের ব্যবহার: রান্নায় অলিভ ওয়েল বা বাদাম তেল ব্যবহার করা ভালো। ভেজিটেবল ওয়েলও হার্টের জন্য ভালো।

* পাতে লবন ব্যবহার: লবণ বেশি পরিমাণে খাওয়ার ফলেও আপনার হাই ব্লাড প্রেশার, হার্ট ও কিডনিতে সমস্যা এমনকি হার্ট অ্যাটাক পর্যন্ত হতে পারে।

* অ্যালকোহলের মাত্রা কমানো: অতিরিক্ত অ্যালকোহল হৃদপেশির ক্ষতি করে। তাই অ্যালকোহল গ্রহণ বাদ দেওয়া শরীরের জন্য ভালো।

* নিয়মিত পরীক্ষা:  রুটিন অনুযায়ী রক্তচাপ, শর্করা এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা পরীক্ষা করান।

প্রিয় বন্ধুগণ পোষ্টটি কেমন লাগল অবশ্যই জানাবেন। সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন!!!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here