গোলাপী চিঠি-৪

0
62

সোনা!
কেমন আছো! নিশ্চয় ভালোই থাকবে!
চারি দিক যখন, গভীর ঘুমের অন্ধকারে
ডুবে আছে…আমার ঘুম ভেঙ্গে যায়।
অবশ্য আমার দেওয়াল ঘড়িটা সেই
টিক্ টিক্ করেই .… আমার সঙ্গ দিচ্ছিল।
দূরে একজন বৃদ্ধ লোক কাশিতে খুবই
কষ্ট পাচ্ছিলেন। তুমিতো জানই আমি
ভাবতে ভালোবাসি। কি যেন ভাবছিলাম!
ভাবনার নৌকায় চড়ে পাড়ি দিচ্ছিলাম,
অতীতে ফেলে আসা এক সুন্দর বদ্ধীপে!
বিশ্বাস করো সোনা; খুব ভালোই লেগেছে-
ঐ অতীতের সোনালী দিন গুলোর স্মৃতি!
আমার মন চঞ্চল হয়ে উঠেছে,
প্রাণের শক্তি আরো বহু গুণ বেড়েছে
আর ‌‌কোমরের ঐ দুষ্ট ক্রনিক ব্যথা-
ভুলে সোজা দাঁড়িয়ে পড়ি। হাত মুখ
ধুয়ে টেবিলে চলে আসি
তোমাকে চিঠি লিখব বলে-
মনে হচ্ছিল যেন তুমি আমার কাঁধে
হাত দিয়ে বলছিলে,”গরম জলটা খেয়ে
বসো -ভালো লাগবে!” আমি বলি-
‘গরম জল!
গরম জল না হয় পরে খাব…কেমন?
আমার খুবই ভালো লাগছে…..’
শোন না! তুমি কি আমাদের কলেজের
ঐ প্রথম দিনটার কথা ভুলে গেছ!
না কি মনে কোনায় রেখে দিয়েছ!
কি একটা দারুণ দিন ছিল!যদিও
আমাদের, পরিচয় ছিল না।
আমি যেন চোখে ছবি গুলো দেখতে
পাচ্ছি…. আমার খুব মনে পড়ছে!
আসলে কখনো ভাবতে পারিনি,
জীবনে এ রকম একটা ভালো দিন
আসবে-মনে করে দেখো সোনা; তুমারো,
নিশ্চয় ভালো লাগবে…..!
ভালো লাগবেই… কথা দিলাম!
ইতি
তোমার সুনু।
*********
নিজ বাসভবন, ধর্মনগর
উত্তর ত্রিপুরা, ভারত
তাং: ১২/০২/২০১৮ ইং
২৯ মাঘ,১৪২৪ বাং
সকাল:৫.৫২

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here