আপনিও আপনার অফিসে এই সমস্যাগুলোর মুখোমুখি হতে পারেন তাই জেনে নিন।

0
58

অফিসে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন আপনি হতে পারেন। যেমন ধরুন, আপনার সহকর্মীর ব্যবহার দ্বারা আপনি বিব্রত হতে পারেন বা আপনি আশানুরূপ পদোন্নতি পাচ্ছেন না, অথবা আপনি আপনার অফিসের পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে পারছেন না। ধীরে ধীরে জটিল আকার ধারণ করে এবং মনে একধরনের দুশ্চিন্তার জন্ম দেয়। চলুন জেনে নেয়া যাক সমস্যাগুলো সম্পর্কে –

মূলত ৪ ধরনের হয়ে থাকে-

  • অফিসের নিয়ম-কানুন লঙ্ঘন।
  • অফিসের বসের সাথে বোঝাপড়া নিয়ে সমস্যা।
  • আশানুরুপ পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত হওয়া।
  • তর্জন–গর্জনকারী।

অফিসের নিয়ম-কানুন লঙ্ঘন

অসৎ লোক সমাজের সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। যদি কেউ কখনো আপনাকে নিয়ম-নীতি লঙ্ঘন বা কোনো অসদুপায় অবলম্বনের প্রলোভন দেখায় তবে তাকে তৎক্ষণাৎ “না” বলুন এবং প্রয়োজনে তার ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবগত করুন। নিয়ম-কানুন মেনে সততা এবং নিষ্ঠার সাথে কাজ না করলে একদিকে যেমন চাকরি হারানোর ভয় থাকে ঠিক তেমনি আপনার সহকর্মীরাও আপনাকে যথাযোগ্য সম্মানের চোখে কখনো দেখতে পারবে না।  প্রতিটি অফিসের নিজস্ব কিছু নীতিমালা মেনে চলুন।

অফিসের বসের সাথে বোঝাপড়া নিয়ে সমস্যা

উচ্চপদে কর্মকর্তার মাঝে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বোঝাপড়া নিয়ে একটা সমস্যা থেকে যায়। কাজের একটা পার্থক্য উচ্চপদে কর্মকর্তারসাথে থেকে যায়। এই ধরনের সমস্যার কারণে একধরনের বিষণ্ণতা পেয়ে বসে। দু’পক্ষ থেকেই বিষয়টা বোঝার চেষ্টা করুন– নিজের জায়গা থেকে তো ভেবে দেখবেনই, একবার তার জায়গা থেকেও ভেবে দেখুন। এ ধরনের পরিস্থিতিতে আপনি সমাধানের চেষ্টা করুন। প্রয়োজনে উপরস্থ্য কর্মকর্তাকে জানান।

পদোন্নতি থেকে বঞ্চিত হওয়া

আপনার কাজ অনুযায়ী পদোন্নতি পান নি বা আপনার চেয়ে কম কাজ ও সফলতা পেয়েও অন্য একজন পদোন্নতি পেয়ে গেছে, তাহলে প্রথমেই মাথা ঠাণ্ডা রাখুন। নিজের বিগত বছরের কাজের সফলতাগুলো নিয়ে একবার নিজে পুনরায় চিন্তা করুন। কারো কাছে কোনো অভিযোগ না করে বরং আপনার বসের কাছে সময় চেয়ে একটি মিটিং সেট করুন। নিজের বিগত বছরের কাজের সফলতাগুলো নিয়ে একবার নিজে পুনরায় চিন্তা করুন। তারপর আপনার বসের সাথে আলোচনা করুন আপনার পদোন্নতি না পাওয়ার কারণগুলো নিয়ে এবং নিজেকে পরবর্তীতে কিভাবে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবেন সেই সম্পর্কে। কিছু কাজ করা আবশ্যক, যেমন- উদ্যোগী হয়ে নেতৃত্ব প্রদান করা, বসের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখা, কথার মাধ্যমে বোঝানোর চেষ্টা করা, আপনার সহকর্মী ও বসকে অবগত রাখা।

কর্তৃপক্ষের সাথে আপনার সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা করুন প্রথমে, যদি সমস্যাগুলোর একটা হাল বের করা সম্ভব হয়, তাহলে যেখানে রয়েছেন সেখানেই নতুন উদ্যমে আবার কাজ শুরু করুন।  চাকরির বাজারে চাকরি অনেকটা সোনার হরিণের মতো। নতুন চাকরির অনুসন্ধান করতে থাকুন। সমস্যাগুলোকেও দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করতে শিখুন, কখনোই সমস্যার কাছে জিম্মি হয়ে পড়বেন না।

৩. তর্জন–গর্জনকারী

অকারণেই কিছু মানুষ চড়া গলায় কথা বলে।  স্থান, কাল, পাত্র না বুঝেই তারা প্রাসঙ্গিক বা অপ্রাসঙ্গিক বিষয়ে কথা বলে থাকেন। এমন ব্যক্তির কথায় কখনো নিজেকে হারিয়ে ফেলবেন না, বরং আপনার সুপারভাইজারকে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করুন।

 

প্রিয় বন্ধুগণ পোষ্টটি আপনাদের কেমন লাগল জানাবেন। সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ্য থাকুন।

প্রিয়টিউনস এর সাথেয় থাকুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here