আজ দেখাবো কিভাবে ওয়াই-ফাই রাউটারের গতি বৃদ্ধি করবেন

0
1

আপনার রাউটারটি রাখুন ব্যবহারের যায়গার
কেন্দ্রস্থলেঃ ইন্টারনেট সংযোগ নেওয়ার সময়
আমরা যে বিষয়টা সবচে’ বেশি অবহেলা করি তা
হচ্ছে অতিরিক্ত তার নেওয়া। তারের পরিমাণ কম
থাকার কারণে রাউটারের জায়গা হয় ঘরের এক
কোণায় বা জানালার পাশে। ফলে ওয়াই-
ফাই’র অর্ধেক সিগন্যাল চলে যায় ব্যবহারের
আওতার বাইরে। এতে গতি হ্রাস পায়। কারণ
ওয়াই-ফাই ছড়ায় ওমনি ডাইরেকশনালি, অর্থাৎ
স্পিকার থেকে আওয়াজ যেভাবে চারদিকে
বৃত্তাকারে ছড়িয়ে যায়, ঠিক সেইভাবে
রাউটারের অ্যান্টেনাকে কেন্দ্র করে ওয়াই-ফাই
চারদিকে ছড়িয়ে যায়। তাই রাউটারকে ঘরের
কেন্দ্রস্থলে রাখার চেষ্টা করুন।

চোখের উচ্চতায় রাখুনঃ শুধু যে ঘরের মাঝখানে
রাখলেই রাউটারের গতি ভালো পাবেন, তা
কিন্তু নয়। উচ্চতারও এখানে যথেষ্ট ভূমিকা
রয়েছে। মাটি থেকে পাঁচ ফুট উচ্চতা, অর্থাৎ চোখ
বরাবর উচ্চতায় রাউটার রাখলে ভালো গতি
পাওয়া যায়। পাশাপাশি রাউটারের সিগন্যালের
পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায় এমন কোনো ডিভাইস,
যেমনঃ কর্ডলেস ফোনের বেস, অন্য কোনো
রাউটার, প্রিন্টার, মাইক্রোওয়েভের সঙ্গেও
রাউটার রাখা ঠিক নয়।

কম ডিভাইস সংযুক্ত করাঃ বাড়িতে বন্ধু বা
আত্মীয়-স্বজনের আনাগোনা খুব বেশি ? সবাইকে
ওয়াই-ফাইয়ের পাসওয়ার্ড দিয়ে বেড়ান ? তাহলে
আপনার ওয়াই-ফাইয়’র গতি কমতে বাধ্য। যদি দ্রুত
গতির ইন্টারনেট সংযোগ না হয়, তাহলে একসঙ্গে
অনেক বেশি ডিভাইস সংযোগ না দে’য়াই ভালো।
এখন অনেক রাউটারে ডিভাইস ব্লক করার সুযোগ
থাকে। যদি দেখা যায়, কোনো নির্দিষ্ট ডিভাইস
অতিরিক্ত ব্যান্ডউইথ টেনে নিচ্ছে, তাহলে
তাকে ব্লক করে দিন। এ ছাড়া ফ্রী ওয়াই-ফাই
পেলে অনেকেরই ডাউনলোড করার শখ মাথাচাড়া
দিয়ে ওঠে। এতেও রাউটারের গতি কমে যায়।
রিপিটার ব্যবহার করাঃ ওয়াই-ফাইয়ের গতি
বাড়িয়ে দিতে রিপিটারের জুড়ি নেই। বাজারে
বা অনলাইন শপে প্রচুর রিপিটার পাওয়া যায়।
রাউটারের সঙ্গে সংযুক্ত করে নে’য়াও সহজ।
অনেক সময় বাড়িতে পুরোনো রাউটার থাকলে
যথেষ্ট গতি পাওয়া যায় না। রাউটার এ সমস্যা
থেকে সহজেই মুক্তি দেবে আপনাকে।

প্রশ্নঃ রিপিটার কী ?

উত্তরঃ রিপিটার হলো এমন একটি ডিভাইস যা
সিগন্যালকে এমপ্লিফাই করার জন্য ব্যবহার করা
হয়। ১৮৫ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করার আগেই আপনি
একটি রিপিটার ব্যবহার করে সেই সিগন্যালকে
এমপ্লিফাই করে দিলে সেটি আরো ১৮৫ মিটার
অতিক্রম করতে পারে। এটি কাজ করে ওএসআই
মডেল -এর ফিজিক্যাল লেয়ারে।
ইউএসবি রাউটার ব্যবহার করুনঃ রাউটার কেনার
আগে দেখে নিন, তাতে ইউএসবি পোর্ট আছে কি-
না। কারণ, ইউএসবি পোর্ট থাকলে তাতে
এক্সটার্নাল হার্ডড্রাইভ সংযোগ করা সহজ হয়।
অথবা প্রিন্টারও সংযুক্ত করতে পারেন। এতে
করে ইন্টারনেট থেকে কোন কিছু প্রিণ্ট দে’য়ার
জন্য ডিভাইসের প্রয়োজন পড়বেনা। ইউএসবি
পোর্টসমৃদ্ধ রাউটারগুলো বেশ শক্তিশালী হয়।
ফলে সিগন্যালও পাওয়া যায় ভালো।

রাউটারের গতি বাড়াতে আমি ব্যক্তিগতভাবে
যে পদ্ধতিটি ব্যবহার করি সে’টির চিত্র দিলাম-
কোমল পানীয়র পরিত্যাক্ত দুইটি কৌটা জাস্ট
একটু সাইজ করে কেটে জায়গামতো লাগানো।
ব্যাস্, তাতেই স্পীড প্রায় দুই থেকে আড়াইগুণ
বেশি আর ওয়াইফাই সুবিধাটাও দে’য়া যাচ্ছে
প্রায় এক থেকে দেড়গুণ বেশি দূরত্ব আর স্পীডে . .

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here